উপ1কলকাতা কেন্দ্রে এখন সর্পের বাস, নেই কোন নার্স বা 1কলকাতাকর্মী

উপ1কলকাতা কেন্দ্রে এখন সর্পের বাস, নেই কোন নার্স বা 1কলকাতাকর্মী
তনুজ জৈন    মালদা :  মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর 2 নম্বর ব্লকের ইসলামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিচ্ছিন্ন অংশগুলি রশিদপুর,উত্তর ভাকুরিয়া,দক্ষিণ ভাকুরিয়া,কাওয়াডোল ও মীরপাড়া তাঁতিপাড়া।গ্রামগুলোর চারিদিকে জল,ছোট দ্বীপের মতো অবস্থান।একদিকে ফুলহার নদী,অন্যদিকে বিহার সীমান্তের ফুলাহারের শাখানদী। যাতায়াতের একমাত্র ভরসা নৌকা।তবে ফুলহার নদীর জল বৃদ্ধিতে আতঙ্কে কাটছে তাদের দিন।উল্লেখ্য ৫টি গ্রামের আপদ বিপদ এর সাথে হলো দক্ষিণ ভাকুরিয়া উপ1কলকাতা কেন্দ্র।তবে দীর্ঘ ৮ বছর ধরে বেহাল অবস্থা পরে রয়েছে। উপ1কলকাতা কেন্দ্র বর্তমানে সাপের বাস।স্থানীয় বাসিন্দা মন্টু যাদব বলেন ১২ বছর আগে এই উপ1কলকাতা তৈরি হয়েছে, কোনো সুযোগ সুবিধা পাইনি,আজপর্যন্ত ডাক্তার দেখা যাইনি,তবে মাঝে মধ্যে নার্স আসতো প্রথম দিকে তবে এখন সপ্তাহে এক দিন আশা কর্মীরা এসে মেয়েদের ট্যাবলেট ও ইনজেকশান করে চলে যায়। চারিদিকে জল রাত্রি বেলা কারো কিছু হলে চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নেই।তবে দ্বিতল উপ1কলকাতা কেন্দ্রে নিচ তলার মাঝে ফেটে গেছে,সেখানে এখন সাপের বাস বলে জানান।দক্ষিণ ভাকুরিয়া বাসিন্দা অনুজ মণ্ডল বলেন নেতারা ভোটের সময় আসে আর প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলে যায়। সরকার পাল্টালেও উপ1কলকাতা অবস্থা একই রকম থেকে যায়।নিচতলায় সাপের বাস এবং দ্বিতল ছাদে জল পরিপূর্ণ তার জারে ছাদ থেকে জল চুয়ে পড়ছে|দক্ষিণ ভাকুরিয়া গ্রামের মেম্বারের স্বামী অবনী সাহা ও ইসলামপুর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান সুষমা মণ্ডল বলেন উপ1কলকাতা বিষয় নিয়ে আমরা বিডিও, ব্লক 1কলকাতা আধিকারিক থেকে নিয়ে জেলাশাসক পর্যন্ত জানিয়েছি। তবে উপ1কলকাতা কেন্দ্র নিয়ে কোনো কর্ণপাত করেন নি।