করোনা আবহে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হল তারাপীঠ মন্দির!

করোনা আবহে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হল তারাপীঠ মন্দির!
আজ বাংলা: করোনা আবহে আবার অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হল তারাপীঠ মন্দির। উল্লেখ্য, লকডাউনে দীর্ঘসময় বন্ধ ছিল তারাপীঠ মন্দিরের দরজা। অবশেষে গত ২৩ জুন, রথযাত্রার দিন ভক্তদের জন্যে দরজা খুলেছিল তারাপীঠ মন্দির। অবশ্য মন্দিরে ঢুকতে একাধিক বিধিনিষেধ মানতে হচ্ছিল ভক্তকূলকে।  তবে, নিয়ম মেনে ভক্ত সমাগম ভালোই হচ্ছিল মন্দিরে। কিন্তু করোনার থাবা পড়েছে তারাপীঠ মন্দিরের আশেপাশের অঞ্চলেও। তাই সাধারণ মানুষের জীবনের কথা ভেবেই আবার মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। আগামী ১ অগস্ট থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্যে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে তারাপীঠের মন্দির। এদিকে করোনার প্রকোপ না কমলে মন্দির খোলা হবে না বলেই জানানো হয়েছে। তবে, প্রথা মাফিক পুজো ও ভোগ দেবেন সেবাইতরা। ফলে এতদিন মন্দিরে প্রবেশ করে মা তারার দর্শন করতে পারছিলেন ভক্তরা, এবার থেকে তা আর সম্ভব হবে না। কবে আবার মন্দিরের দরজা সাধারণের জন্যে খুলবে, তা জানানো হয়নি। মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের জানান, 'আগে তো মানুষের জীবন। করোনার এই পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই আমাদের এমন সিদ্ধান্ত নিতে হল। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখা হবে মন্দির। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার মন্দিরের দরজা খুলে দেওয়া হবে ভক্তদের জন্যে।' উল্লেখ্য, এর আগে কৌশিকী অমাবস্যায় তারাপীঠ মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। আগামী ১৯ অগস্ট (২ ভাদ্র), বুধবার কৌশিকী অমাবস্যা। সেই উপলক্ষ্যে গোটা 12, এমনকী ভিন 12 থেকেও এসে ভিড় জমান ভক্তরা। তাই মানুষের 1কলকাতাের কথা চিন্তা করেই ১২ অগস্ট থেকে ২০ অগস্ট পর্যন্ত তারাপীঠ মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এরই মধ্যে তারাপীঠ মন্দির সংলগ্ন অঞ্চলে করোনা রোগীর সন্ধান মেলে, তাই এবার অনির্দিষ্টকালের জন্যেই বন্ধ করে দেওয়া হল মন্দিরের দরজা। তবে, মন্দির বন্ধ থাকলেও রীতি অনুযায়ী মা তারার পুজো ও ভোগ নিবেদন করবেন সেবাইতরা।